সাউথ আফ্রিকার বিরুদ্ধে অসাধারণ জয় দিয়ে শুরু বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন

প্রকাশিত: ১১:৩৬ অপরাহ্ণ, জুন ২, ২০১৯

রাইয়ানুল ইসলাম অপু :: সাউথ আফ্রিকার বিরুদ্ধে অসাধারণ জয় দিয়ে  আইসিসি ২০১৯ বিশ্বকাপ মিশন শুরু করলো বাংলাদেশ।এখন বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে জয়ে দলের মধ্যে আত্নবিশ্বাস আরো বেড়েছে।খেলায়  টসে হেরে সৌম্যের ঝড়ো ব্যাটিং ও তামিমের দায়িত্বশীল ব্যাটিং এ সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে তামিম ও সৌম্য ওপেনিং ব্যাটিং শুরু করেন। ওপেনিং ব্যাটিং এ তারা দু’জন ৬০ রান করেন, তামিম ১৬ রান করে ফিরে গেলেও অপর প্রান্তে ১০০ এর উপর স্ট্রাইক রেইট নিয়ে ব্যাটিং করছিলেন সৌম্য, সৌম্য ৩০ বলে ৪২ রানের ইনিংস খেলে আউট হওয়ার পর সাকিব ও মুশফিক মিলে বাংলাদেশের ইনিংস গড়া শুরু করেন, পর পর দু’জনই হাফ-সেঞ্চুরী করেন, তাদের দুজনের ১৪২ রানের পার্টনারশীপে স্কোর ২০০ রান ছাড়িয়ে যায়, দুজনেরই আজ সেঞ্চুরী করার সুযোগ ছিল, কিন্তু সাকিব ৭৫ রান করার পর ধৈর্য্য ধরতে পারলেন না, বাজে একটি সুইপ শট করতে গিয়ে ইমরান তাহির বলে বোল্ড আউট হন তিনি, পরে মুশফিকও দায়িত্ব নিয়ে ব্যাটিং করলেও শেষ পর্যন্ত ৭৮ রানে গিয়ে থামে তার ইনিংস, মিডল অর্ডারে মিথুন এবং শেষ দিকে মাহমুদুল্লাহ ও মোসাদ্দেক এর ঝড়ো পার্টনারশীপে ৫০ ওভার শেষে বাংলাদেশ ৬ উইকেটে ৩৩০ রান করতে সক্ষম হয়, যা ওডিআই খেলায় বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান, সাউথ আফ্রিকার ইমরান তাহির ও ফেলুকাও ছাড়া কেউ ভালো বোলিং করতে পারেন নি। ইমরান তাহির, ফেলুকাও ও ক্রিস মরিস ২ টি করে উইকেট নেন।
২য় ইনিংসে ৩৩১ রানের টার্গেটে ওপেনিংয়ে আফ্রিকার ডি কক ও মারক্রাম ভালোই সুচনা করেন। কয়েক বার রান আউটের চান্স মিস করলেও মুশফিক বিপদজনক ব্যাটসমান ডি কক কে রান আউট করে আফ্রিকার প্রথম উইকেটের পতন ঘটান। পরে ক্যাপ্টেন ডু-প্লেসিস ও মারক্রাম এর দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ভালো সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল সাউথ আফ্রিকা, তখন ই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিবের বলে বোল্ড আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরত যান মারক্রাম, উনি ৪৫ রান করে আউট হন। ডু-প্লেসিস ও মিলার এর ব্যাটিংয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখছিল আফ্রিকা, কিন্তু মেহেদী ও মুস্তাফিজের অসাধারণ বোলিংয়ে ২ জনই আউট হয়ে দলকে বিপদে ফেলে যান, পরে ডুসেন ও ডুমিনি দলকে জিতানোর জন্য বোলারদের উপর ভালোই চড়াও হন, কিন্তু ফ্যান্টাসটিক ক্যাপ্টেন মাশরাফির চালাকি ক্যাপ্টেন্সিতে সাইফুদ্দিন ও মুস্তাফিজের অসাধারণ বোলিংয়ে আফ্রিকার শেষ ব্যাাটসম্যানদের উইকেটগুলো তুলে নেয় ওরা, শেষ পর্যন্ত আফ্রিকা ৫০ ওভার খেলে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩০৯ রান করতে সক্ষম হয়, আর বাংলাদেশ জিতে যায় ২৭ রানে। মুস্তাফিজ ৩ উইকেট, সাইফুদ্দিন ২ উইকেট এবং সাকিব ও মিরাজ ১টি করে উইকেট নেন সাউথ আফ্রিকার।